রিপোর্ট – সালমান শুভ 
রাজধানীর দক্ষিণ যাত্রাবাড়ী হাজী ইউনুস সুপার মার্কেট ৮২/এ হোল্ডিংয়ের চতুর্থ তলায় অবস্থিত হোটেল নিউ পপুলার প্যালেস ও উত্তর যাত্রাবাড়ীর । সামিউল প্লাজার ৪০/২ নং হোল্ডিংয়ের পঞ্চম তলায় হোটেল বলাকায় চলছে অসামাজিক কার্যকলাপ!

প্রশাসনের চোখে ফাঁকি দিয়ে এই দুইটি আবাসিক হোটেলে চলছে অবৈধ দেহ ব্যবসা ও মাদক বানিজ্য!
আবাসিক হোটেল দুটোতেই দেহ ব্যবসা বন্ধ করতে বার বার অভিযান পরিচালনা করেছেন যাত্রাবাড়ী থানার পুলিশ! কিন্তু কয়েক মাস বন্ধ থাকার পর পুনরায় আগের মতো দেদারছে চলছে অসামাজিক কার্যকলাপ নারীদের দিয়ে দেহ ব্যবসা! সরেজমিনে খোঁজ নিয়ে দেখাগেছে, অন্যান্য দিনের মত এই দুইটি আবাসিক হোটেল রমরমা দেহ ব্যবসা চলছে! হোটেলের সামনে বসে থাকা দালাল বা হোটেল স্টাফরা দাড়িয়ে থেকে খদ্দের ডেকে ভেতরে নিয়ে যায়।

আবার ভ্রাম্যমান দালালরা খদ্দের ধরে সরাসরি হোটেল নিয়ে আসছে। আর হোটেল মালিক পক্ষ আশে পাশে থেকে পাহারা দিচ্ছে। এভাবেই যাত্রাবাড়ীর এই দুইটি হোটেলে প্রতিদিনই চলে আবাসিক হোটেলের নামে রমরমা দেহ ব্যবসা!
এই সব দেহব্যবসায় জড়িয়ে পড়ছে বিভিন্ন স্কুল-কলেজ পড়ুয়া ছাত্রী ও মধ্যবিত্ত পরিবারের গৃহ বধূরা।
অনুসন্ধানে জানা গেছে, নগরীর ছোট বড় মিলে কয়েকটি আবাসিক হোটেলে এই ধরনের অনৈতিক কাজ চলছে। তবে এই দুই হোটেলের দৌরাত্ম্য অনেক বেশি। এই দুইটি আবাসিক হোটেলে প্রতিদিন যৌন কর্মী সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত এবং রাতের বেলায় আবারও অন্য গ্রুপ এসে পরের দিন সকাল পর্যন্ত দেহব্যবসা করে নিজ নিজ গন্তব্যে চলে যায়।
যাত্রাবাড়ী থানা পুলিশের নাকের ডগায় আইন শৃঙ্খলা বাহিনীকে বোকা বানিয়ে এসব অপকর্ম চালিয়ে আসছে উল্লেখিত দুইটি আবাসিক হোটেল কর্তৃপক্ষ।।
সরেজমিনে দেখা যায়, হোটেল নিউ পপুলার প্যালেস এর মালিক সাইদুল ইসলাম, জামাল, কাদের, পাপন ও হোটেল বলাকা আবাসিকের মালিক পলাশ, সাইদুল ইসলাম,ফারুক(হোটেল নিউ পপুলার প্যালেস), মঞ্জুর হাসান, জুয়েল একটি সংঘবদ্ধ দল হয়ে ও রাজনৈতিক দলের নেতাদের ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে অবাধে চালিয়ে যাচ্ছে আবাসিক হোটেলের নামে দেহ ব্যবসা ও মাদকের আখড়া।
এসব আবাসিক হোটেল গুলোতে বসে নিয়মিতই পাইকারি মাদক ব্যবসায়ীরা ছোট ছোট ব্যাবসায়ীদের কাছে ছোট বড় মাদকের চালান হাত বদল করে।
স্থানীয় বাসিন্দারা জানান,নারী পাচার চক্র একটি সংবদ্ধ দল সিন্ডিকেট করে নারীদের বিভিন্ন স্হান থেকে আনা নেওয়া করে সাপ্লাই দেয় রাজধানীর বিভিন্ন আবাসিক এলাকার ফ্ল্যাটে,বুঝার কোন উপায় নাই,ঘনবসতি এলাকায় কিভাবে সম্ভব আমাদের বোধগম্য নয়,আইনশৃঙ্লা বাহিনীর দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে